সিনে সমাচার

তিনবার বিয়ে তো কী হয়েছে! 

  সিনেঘর ওয়েব দল

২১ এপ্রিল, ২০১৯
কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বিয়ে নিয়ে বেশ কদিন ধরেই তুলকালাম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। শ্রাবন্তীর সম্ভাব্য তৃতীয় বিয়ে নিয়ে এই আলোচনা সমালোচনা। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ট্রল ও মিমের শিকার হন তিনি। এবার তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন সহশিল্পীরা। ভক্তদের বলে দিয়েছেন, অভিনয় নিয়ে বলুন, ব্যক্তিগত জীবনে হাত বাড়াবেন না।

শ্রাবন্তী ও তাঁর বিশেষ বন্ধু রোশান সিংয়ের একটি মালা পরা ছবি নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয় ১৯ এপ্রিল। অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ গুঞ্জন ছড়ান যে, তৃতীয়বার বিয়ে করেছেন শ্রাবন্তী। পরে রোশান সিং তাঁর ফেসবুক প্রোফাইলে এসে লেখেন যে ওই ছবিটি তাঁদের বিয়ের ছবি না। তবে তাঁরা যে বিয়ে করছেন সেই খবরটি সঠিক বলেই জানা গিয়েছে।

এরই সূত্র ধরে বেশ কিছু মিম ভাইরাল হতে শুরু হয়। যা শ্রবান্তী ও তাঁর পরিবারের পক্ষে অত্যন্ত অবমাননাকর ও কুরুচিপূর্ণ। এই ধরনের মিম ও ট্রোলের বিরুদ্ধে শুক্রবার থেকেই সরব হতে থাকেন তাঁর সহশিল্পী ও বিনোদন জগতের তারকারা। ছোটপর্দা ও বড়পর্দার বহু অভিনেতা-অভিনেত্রী তাঁদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসে পাবলিক পোস্ট করে এই ধরনের আচরণের তীব্র প্রতিবাদ জানান। তাঁদের প্রায় সকলের একটিই মত, কারও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সমালোচনা করা এবং প্রকাশ্যে তা নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করা কোনওভাবেই কাম্য নয়।

অভিনেতা জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ফেসবুক প্রোফাইলে লেখেন, ‘একজন অভিনেতা বা অভিনেত্রীর অভিনয় নিয়ে মাথা ঘামান, সমালোচনা করুন, মেনে নেব। তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কাটাছেঁড়া করার কোনও অধিকার আমাদের কারও নেই! সুস্থ থাকুন…।’

অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী লিখেছেন, ‘আমি কতবার বিয়ে করব, সেটা আমার ব্যাপার, আমার সিদ্ধান্ত। যতবার অসুখী হব, ততবার আবার সুখী হবার স্বপ্ন দেখব…পাকা সিদ্ধান্ত নেবার আগে বাবা-মার মতামত অবশ্যই নেব। এখন অবশ্য শুধু মার। মেয়ে বড় হবার পর করলে মেয়ের মতামতও নেব। দিদির সঙ্গেও একবার আলোচনা করে নিতে পারি। আর হ্যাঁ, কঠিন সময়ে যে দুয়েকজন বন্ধুকে পাশে পাব, খুশির খবর আগে তাদেরই জানাব , খুশির সময়ে শুধু তাদেরই ডাকব। ব্যাস, আর কারো মতামত নেবার প্রয়োজন নেই। জাস্ট নেই। কেউ আগ বাড়িয়ে মতামত দিতে এলে নেব না। শ্রাবন্তীরও নেবার কোন প্রয়োজন দেখি না।’
অভিনেত্রী কাঞ্চনা মৈত্র লেখেন, ‘খুব খুশি আমি শ্রাবন্তীর জন্য কারণ ও নিজের জীবনটা নিজের শর্তে বাঁচতে চাইছে। একজন স্বাধীন মানুষ হিসেবে নিজের জীবনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে…।’





আরও দেখুন

 খুঁজুন