সিনে সমাচার

করোনায় কী করছেন তারকা যুগল? 

  সিনেঘর ওয়েব দল

২০ মার্চ, ২০২০
বাসায় বসে সাইফ ও কারিনা কাপুর খান। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

করোনা থাবায় টালমাটাল সারাবিশ্ব। বিনোদন অঙ্গনও বন্ধ বিশ্বজুড়ে। বছরব্যাপী ব্যস্ত তারকাদের মিলল যেন অবসর। কী করছেন তাঁরা, বাসায় বসে। তারই করচা থাকল আজকের আয়োজনে।

সাইফ-কারিনা
বলিউড অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খান দুটো ছবি ইনস্টাগ্রামে দিয়েছেন। তাতে দেখা গেল নবাব বেটা সাইফ পড়ছেন বই, আর কারিনা আছেন তাঁর নতুন গ্রাম ইনস্টাগ্রাম নিয়ে। কী আর করা। করোনায় আটকে গেল সবার জীবন।


অক্ষয়-টুইঙ্কেল
অক্ষয় আর কী করবেন? টুইঙ্কেলের সঙ্গে সময় দেওয়াই এখন মূল কাজ। তাই তো অবসরটা একটু রোমন্টিকভাবেই কাটাচ্ছে না দুজন। করোনাকে ধন্যবাদ দিতে পারেন তাঁরা। এত ব্যস্ততায় দুজনের দেখা হওয়াতো ভারই বলা চলে।


রিচা-আলি
কথা ছিল এই এপ্রিলেই বিয়ে হবে। সবকিছু ঠিকঠাক। কিন্তু করোনার হানা এসে সব উল্টে পাল্টে দিল। অনিশ্চিত এই জুটির বিয়ের তারিখ। আপতত রিচা চাড্ডা ও আলী ফজলের একে অপরকে সময় দেওয়া ছাড়া আর উপায় নেই। কারণ তাদের বিয়েতে উপস্থিত থাকার কথা ছিল যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের বেশ কজন স্বজনের।


নাতাশা ও বরুণের কপাল খুলল
নাতাশা দালাল ও বরুণ ধাওয়ানের পছন্দ ছিল বিয়ে করবেন থাইল্যান্ডের একটি দ্বীপে। বিধি বাম। সেটি পাল্টে ছোট্ট পরিসরে মুম্বাইতে বিয়ে হওয়ার পরিকল্পনা হয়। কিন্তু করোনার ভয়াবহতায় সে পরিকল্পনাও বাতিল। এবার তারা বিয়ের তারিখ নিয়ে গেছেন আগামী নভেম্বরে। আর পছন্দের সেই দ্বীপেই।


রাজ-শুভশ্রী
কলকাতার পরিচালক রাজ চক্রবর্তী আর নায়িকা শুভশ্রী যে এই কটা দিন বাড়িতে কাটাবেন বেশ আনন্দে তা বলা যায়। কারণ শুভশ্রীর নাকি অবসর ঘরে কাটাতে ভালো লাগে। কিন্তু রাজের তো কাজ কাজ আর কাজ। কী করবেন তিনি। তাকেও যে ঘরেই কাটাতে হচ্ছে সময়। ঘরে কী করবেন তাঁরা? আনন্দবাজারকে রাজ জানালেন, মোটামুটি দুজনেই বাড়িতে সময় দেবেন। রাজ বলেন, আমাদের মতো সেল্ফ এমপ্লয়েডদের জন্য এই ছুটি কাম্য নয়। তেরো দিন রোজগার থাকবে না আমাদের। কী আর করব? তবে শুভশ্রী আজ থেকেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে আমার সব কাজের বন্ধুদের লিখেছে, তোমরা বাড়ি থেকে বের হওয়া বন্ধ কর।

ও চায়, কাজের বন্ধুদের দেখাদেখি আমিও আর বাড়ি থেকে বের হব না। এমনিতেই ঘরে থাকতে ভালবাসে শুভ। এখন তো আমাকেও পাবে, একেবারে সোনায় সোহাগা।

বলা যায়, দুজনেই গল্পের বই পড়ে, আগামী ছবির চিত্রনাট্য নিয়ে সময় কাটবে। থাকতে পারবেন কয়েকদিন কাছাকাছিও।


ঐন্দ্রিলা-অঙ্কুশ
টালিগঞ্জের এই জুটির কথা ছিল ইয়োরোপ যাওয়ার। কিন্তু তা আর হচ্ছে না। আপতত সে পরিকল্পনা ভেস্তে গেছে। এখন দুজনকেই কদিনের জন্য ঘরকুনো হতে হবে। কিছুই করার নেই। করোনাপ্রভাবে এ ছাড়া আর উপায় কী? ঐন্দ্রিলার জন্মদিন আগামী ৩১মার্চ। আক্ষেপ নিয়ে আনন্দবাজারকে বলেন, এই প্রথমবার হয়তো বাড়িতেই একটা কেক না কেটেই জন্মদিন পালন করতে হবে। আমি আর অঙ্কুশ প্রথম যে দিন সিদ্ধান্ত নিলাম ইয়োরোপ যাচ্ছি না, কেঁদে ফেলেছিলাম। এত শখ ছিল। সব ভেস্তে গেল।

লং ড্রাইভে যাওয়া, সিনেমা দেখা দুজনের অবসর যাপনের প্রধান অবলম্বন। সেটাও হচ্ছে না। করোনার কারণে সব বন্ধ। তাই আপাতত বাড়িতেই থাকছেন তিনি। অঙ্কুশও এসেছিলেন বাড়িতে। কী করা। দুজন মিলে নেটফ্লিক্সে সিনেমা দেখেছেন।

অঙ্কুশ অবশ্য এই অবসরে দুই তিনটা চিত্রনাট্য পড়েছ ফেলেছেন। কিন্তু এবারের জন্মদিনটা এমন সাদামাটা কাটলে কী করবেন? পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে নিশ্চয়ই একটা বড়সর ট্যুর দিবেন, দিব্যি বলা যায়।


দোলন-দীপঙ্কর
দীপঙ্করের প্রতি কড়া নজর স্ত্রী দোলনের। দীপঙ্করের এমনিতেই ফুসফুসে পানি জমার সমস্যা আছে। আর এই করোনা আঘাত হানে ফুসফুসে। তাই একদমই কড়া সতর্কতা। বললেন, আমি তো খবরের কাগজও স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করে দিচ্ছি।

এত ছুটি একসময়ে পেয়ে কী করবেন ভেবে পাচ্ছেন না দোলন। বললেন, পুজার সময় চার দিন ছুটি পাই। কিন্তু এত দিনের ছুটি তো আগে পাইনি। নিজেও বুঝতে পারছি না কী করব। বাড়িতে কাজের ক্ষেত্রে যে দিদি সাহায্য করেন তিনিও ছুটিতে। তাই বাড়ি পরিষ্কার করা থেকে রান্নাবান্না সব কিছু আমাকেই করতে হচ্ছে আপাতত। যখন বাড়ি পরিষ্কার করা শেষ হয়ে যাবে তখন ভাবব এর পর কী করা যায়।





আরও দেখুন

 খুঁজুন