সিনে সমাচার

অভিষেকের জন্য স্বজনপ্রীতি বিগবির 

  সিনেঘর ওয়েব দল

৮ জুন, ২০২০
অমিতাভ বচ্চন, পুত্রবধু ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও অভিষেক বচ্চন। ছবি: সংগৃহীত

বলিউডে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ সেই অনেক আগে থেকে। স্বজনপ্রীতির অভিযোগে অভিযুক্ত হননি, এমন তারকাসন্তান খুব কম পাওয়া যাবে। এবার জানা গেল স্বয়ং অমিতাভ বচ্চন এই দোষে দুষ্ট। ছেলে অভিষেক বচ্চনের জন্য ছবি ভিক্ষা চেয়েছিলেন স্বয়ং বিগবি।

ছেলের কেরিয়ার শক্ত করবেন বলে পরিচালক ও প্রযোজকদের কাছে চেয়েছিলেন শর্ত। তখন সালটা ২০০২। অভিষেক বচ্চন হাটি হাটি পা রাখছেন বলিউডে। দুই কি তিনটি ছবিতে অভিনয় করেছেন। কিন্তু এখনও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। পরিচয় দিতে বাবা অমিতাভকেই টেনে আনতে হয়। কী করা যায়! বাবা অমিতাভও চিন্তিত এতে। কী করে ছেলেকে প্রতিষ্ঠা করা যায় ইন্ডাস্ট্রিতে? এ চিন্তা ঘুরপাক খাচ্ছে বিগবির মাথায়।

তখন একটি বুদ্ধি মাথায় এল অমিতাভের। নিজের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ছেলেকে প্রতিষ্ঠার জন্য মরিয়া হলেন বিগবি। ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকায় লিখেছে, তখন প্রযোজক বনি কাপূর অমিতাভ বচ্চনের কাছে যান একটি ছবিতে অভিনয়ের জন্য। ছবিতে আরও তারকা ছিলেন বিবেক ওবেরয়, ঐশ্বরিয়া রাই ও দিয়া মির্জা। ছবির নাম ‘কিউ হো গয়া না‘।

অমিতাভ বচ্চন ছবির কথা শুনেই মুখের ওপর না করে দেন বনি কাপূরকে। বনিও নাছোড়বান্দা। অমিতাভকে এই ছবিতে অভিনয় করাবেনই। তাই বারবার অমিতাভের কাছে আসেন। অনুরোধ করেন বিগবি যেন ছবিটিতে অভিনয়ের জন্য রাজি হন। এরপর অনেক অনুনয়-বিনয়ের পর রাজি হন অমিতাভ। কিন্তু পরিবর্তে বনিকে দেন একটি শর্ত।

অমিতাভ বনি কপূরকে বলেন, বনি যদি তাঁর পরবর্তী ছবিতে অভিষেক বচ্চনকে নেয়, তবেই অমিতাভ এই ছবিতে অভিনয় করতে রাজি আছেন। তা ছাড়া তিনি অভিনয় করবেন না। বনির হাতেও দ্বিতীয় কোনো অপশন নেই। এই মর্তে রাজি হয়ে যান।

বণি কাপূর তার পরবর্তী ছবি রান এ অভিনয় করান অভিষেককে। কিন্তু ‘রান’মুখ থুবড়ে পড়ে বক্স অফিসে। যে কারণে অমিতভা স্বজনপ্রীতি করলেন, তার ফলাফল হলো শূন্য। তবে এই ছবির হাত ধরেই অভিষেকে কাছে এসেছিল যুবা ছবির প্রস্তাব। আর যুবা ছবিতে অভিষেক ও রানি মুখার্জির যুগলবন্দী কার না হৃদয়ে গেঁথে আছে। বিশেষ করে কাভি নিম নিম গান যেন এখনো বাজে কানে।






আরও দেখুন

 খুঁজুন