সিনে সমাচার

সাড়া দিচ্ছেন সৌমিত্র 

  সিনেঘর ওয়েব দল

১৪ অক্টোবর, ২০২০
সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। ছবি: ফেসবুক

কিংবদন্তিতূল্য অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আগের থেকে ভালো আছেন। এখন তিনি সাড়া দিচ্ছেন। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বুলেটিন প্রকাশ করে বেলভিউ হাসাপাতাল কর্তৃপক্ষ এটি জানিয়েছে। গত কয়েকদিন ধরেই মারাত্মক অসুস্থ ফেলুদাখ্যাত এই অভিনেতা।

এখন বাইপ্যাপ সাপোর্ট অর্থাৎ নন ইনভেসিভ ভেন্টিলেশন সাপোর্ট খুলে নেওয়া হয়েছে। কিছুটা হলেও আগের থেকে তাঁর স্বাস্থ্য উন্নতির দিকে। বেশ কয়েকদিন আগেই কোভিড ধরা পড়ে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শরীরে। এরপরেই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিন্তু দিন দিন তাঁর অবস্থা খারাপ হতে থাকে। এখনও পর্যন্ত দুই বার প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হয়েছে তাঁকে। সমস্ত অঙ্গপ্রত্যঙ্গ স্বাভাবিক রয়েছে। ডাক্তারের পর্যবেক্ষণে আছেন তিনি।

এ দিন এই অভিনেতাকে আবার ইকো, ইসিজি এবং রক্তপরীক্ষা করানো হয়। এমআরআইও করানো হয়। আজ আবার নতুন করে করোনা পরীক্ষা করানোর কথা। তবে ডাক্তাররা জানিয়েছেন, সৌমিত্র সাড়া দিলেও এখনো সঙ্কট কাটেনি। তবে তাঁর শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত আছে। তিনি চিকিৎসায় সাড়াও দিচ্ছেন বলে হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে। নন ইনভেসিভ ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রাখা হয়েছে তাঁকে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে কলকাতার আনন্দবাজারকে সৌমিত্রের মেয়ে পৌলমী বসু বলেন-
‘আগের চেয়ে ভাল আছেন বাবা। খানিকটা স্থিতিশীলও। ১ শতাংশ হলেও পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। আজ সকালে বাই-প্যাপ সাপোর্ট খুলে নেওয়া হয়েছে। এই মুহূর্তে বাবাকে ইনভেসিভ ভেন্টিলেশনে রাখার কথা ভাবছেন না চিকিৎসকরা’।

নোভেল করোনায় সংক্রমিত সৌমিত্রকে গত মঙ্গলবার বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করানো হয়। তখন থেকেই সেখানে ডাক্তারের তত্ত্বাবধানে আছেন তিনি। শুক্রবার তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। সোমবার হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছিল, সৌমিত্রের প্রস্টেটের পুরনো কর্কটরোগ ফিরে এসেছে। ছড়িয়ে পড়েছে ফুসফুস এবং মস্তিষ্কে। সংক্রমণ ঘটেছে মূত্রথলিতে। তার পরেই সৌমিত্রকে বাইপ্যাপ ভেন্টিলেশনে রাখা হয়।





 খুঁজুন