• ‘মহানন্দা’ ছবিটি মহাশ্বেতা দেবীর জীবনী অবলম্বনে তৈরি হয়েছে।
  • তবে এটি তাঁর বায়োপিক নয়।
  • মহাশ্বেতা দেবীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন গার্গী রায়চৌধুরী।
  • পরিচালক অরিন্দম শীল।
  • মুক্তি পাবে আগামী ৮ এপ্রিল।
বাংলা সাহিত্যের অন্যতম অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ মহাশ্বেতা দেবী। এবার তাঁর জীবনী অবলম্বনে ছবি ‘মহানন্দা’ আসছে। হয়ে গেছে শুটিংয়ের কাজ। প্রকাশিত হয়েছে ট্রেলারও। শিগগির মুক্তি।

আগেই জানা গিয়েছিল। এটি তাঁর সরাসরি বায়োপিক নয়। এই সাহিত্যিকের জীবনকে অবলম্বন করে তৈরি হয়েছে ছবির গল্প। নাম ‘মহানন্দা’। পরিচালক অরিন্দম শীল।

সামাজিক কাজের পাশাপাশি রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটেও তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। শবর, মুন্ডা থেকে সিঙ্গুর আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন মহাশ্বেতা দেবী। তাই এই কথাসাহিত্যিকের জীবনদর্শন উদ্বুদ্ধ করেছে অসংখ্য মানুষকে।

পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশের ক্ষুদ্রনৃগোষ্ঠী উপজাতিগুলোর অধিকার আদায়ের লড়াইয়ে তিনি ছিলেন অগ্রগামী। তাঁর সেই লড়াইয়ের কাহিনি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‘মহানন্দা’য়। পর্দায় মহাশ্বেতা দেবী রূপে আসছেন গার্গী রায়চৌধুরী।

কেমন ছিল গার্গীর মহাশ্বেতা দেবী হয়ে ওঠার প্রস্তুতি? ভারতীয় গণমাধ্যম আজকাল ডট ইন-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মন খুলে কথা বললেন টালিউডের এই অভিনেত্রী।

মহানন্দা ছবিতে গার্গী রায়চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

‘মহানন্দা’ ছবিতে গার্গী রায়চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

‘যত কঠিন চরিত্রই হোক, আজ পর্যন্ত খুব হোমওয়ার্ক করে, খুব কসরত করে আমি শুটিং ফ্লোরে যাইনি। এটা থিয়েটার নয়। থিয়েটারে অনেক বেশি অনুশীলন দরকার।’

‘আর সিনেমার জন্য ভেতরে ভেতরে মানসিক প্রস্তুতির দরকার। তাই ফ্লোরে গিয়েই নিজেকে তৈরি করে নিই। দেখা গেল আমি একরকম ভেবে গেলাম, কিন্তু পরিচালক চাইছেন অন্যভাবে।’

‘তখন অভিনয়ের প্যাটার্ন, ভাবনা সবটা বদলাতে হয়। তাই আলাদা করে বিশেষ কোনও প্রস্তুতি নিইনি। তবে তাঁর অনেক বই পড়েছি। বিয়ের পরে তাঁকে জেনেছি বিশেষভাবে।’

আরও পড়ুন: কান চলচ্চিত্র উৎসবে টম ক্রুজের ছবি

‘আমার অনেক কাছের মানুষ, দূরসম্পর্কের আত্মীয়রা মহাশ্বেতা দেবীকে ঘনিষ্ঠভাবে চিনতেন। তাঁদের চোখ দিয়েই আমি মহাশ্বেতা দেবীকে চিনেছি। আমি তো কোনওদিন তাঁকে দেখিনি।’

‘যে কয়েকজন মানুষকে নিয়ে ভীষণ কৌতূহলী ছিলাম, তাঁদের মধ্যে মহাশ্বেতা দেবী একজন। তাঁর শিরদাঁড়ার জোর, কথা বলার ধরন, মানুষের জন্য নিজেকে নিংড়ে দিয়ে উপকার করা। এগুলো আমি কাছের মানুষদের থেকেই শুনেছি। এটাই আমাকে মানসিকভাবে মহাশ্বেতা দেবী হতে প্রস্তুত করেছে।’

‘মহানন্দা’ ছবির ট্রেলারে ইতিমধ্যে গার্গীকে দেখেছেন দর্শক। ট্রেলারে তাঁর নানা রূপ চমকে দিয়েছে দর্শককে। কীভাবে হয়ে উঠলেন বহুরূপী? গার্গী জানান, ‘লুক বলতে, শাড়ি পরার ধরন, চশমা এ সবই পরিচালক অরিন্দম শীল নিজের মতো তৈরি করে নিয়েছিলেন। মেকআপ করে যখন আয়নার সামনে দাঁড়াতাম, তখন নিজেই চমকে যেতাম। ছবিতে পাঁচটা ভিন্ন লুকে আমাকে দেখা যাবে। ৭৫ বছর বয়সের চরিত্রের জন্য প্রস্থেটিকের সাহায্য নেওয়া হয়েছিল।’

একটানা এমন মেকআপে শুটিং করতে কষ্ট হয়নি? আজকালকে গার্গী বলেন, ‘না। তবে কখনও কখনও মনে হয়েছে গরমটা কম হলে ভাল হত। কিন্তু তারপরই যখন শটটা দিয়েছি, সেই আনন্দটা আমি কাউকেই প্রকাশ করতে পারব না। সত্যিই এক অদ্ভুত অভিজ্ঞতা।’

এই অভিনেত্রী জানালেন, তাঁর শেষ দিনের শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা্ও। গার্গী বলেন, ‘এখনও মনে আছে, ছবির লাস্ট শট দিয়েছি বইপাড়ায় কতগুলো বইয়ের মধ্যে দাঁড়িয়ে। পরিচালক বললেন, “অ্যান্ড দিস ইজ দ্য লাস্ট শট অফ আওয়ার মহানন্দা”। আমরা সবাই হাততালি দিয়ে উঠলাম। কিন্তু গলার কাছে কেমন একটা হল। বুঝলাম, কষ্ট পাচ্ছি। এবার এই চরিত্রটা থেকে বেরোতে হবে। কিন্তু সেলুলয়েডের মজা একটা, এরপর যাঁরাই ছবিটা দেখবেন, তাঁরাই বুঝতে পারবেন প্রত্যেকটা মুহূর্তে আমি কোন ভাবনার মধ্যে দিয়ে গেছি।’

‘মহানন্দা’ ছবির প্রযোজক ফিরদৌসল হাসান আশাবাদী ছবিটি নিয়ে। তিনি বলেন, ২০১৯ সালে প্রথম এই সিনেমা নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয়। ২০২০ সালের মার্চে সিনেমার কথা ঘোষণা করি। তখন থেকেই অতিমারির শুরু। প্রতিকূলতা পেরিয়েই আমরা শুটিং চালিয়ে গেছি। এখনও পর্যন্ত যেভাবে সাড়া পাচ্ছি, তাতে আমার আশা ছবিটা সকলের ভাল লাগবে।’

চলতি বছর ৮ এপ্রিল মুক্তি পাবে ছবিটি।