পুলিশকে নিয়ে অভিযোগের শেষ নেই উপমহাদেশে। বিশেষ করে ভারত ও বাংলাদেশে পুলিশ যেন গণশত্রু। সেই ধুরন্ধর পুলিশ নিয়েই ছবির গল্প। সিনেমার টিকেট ব্ল্যাকার থেকে থানার পুলিশ ইনচার্জ। তারপর শুধু টাকা খাওয়ার ধান্দাবাজি। একনামে সবাই চেনে সিম্বাকে।

তবে এতটুকুতেই ছবির গল্প শেষ করে দেননি অ্যাকশন থ্রিলার ঘরানার মাসালা ছবির অন্যতম কারিগর রোহিত শেঠি। কাহিনি ঘুরিয়েছেন নানা কায়দায়। একদিন তাই এই ধান্দাবাজ পুলিশই বুঝতে পারে জনগণের বেদনা। তখন সে হয়ে ওঠে জনগণের সত্যিকারের সেবক।

চলচ্চিত্র: সিম্বা
পরিচালক: রোহিত শেঠি
কলাকুশলী: রণবীর সিং, সারা আলী খান, সনু সুদ
দেশ: ভারত
সাল: ২০১৯
রেটিং: ২/৫

একেবারেই বলিউডের কাঠামোবদ্ধ সিনেমা। যাকে মোটাদাগে বলা যায় বাণিজ্যিক চলচ্চিত্র। একটু খানি অ্যাকশন, একটু খানি গান, একটু খানি অভিনয়, একটু খানি অতি অভিনয়, একটু খানি নায়িকার আগমন, একটু খানি দ্বন্দ্ব, একটু খানি উত্তেজনা সবকিছু পাওয়া যাবে এই ছবিতে।

রোহিত শেঠি পাকা হাতের খেলোয়াড়। তাই পুলিশ কেন্দ্রীক ছবি করার সত্ত্বেও খুব একটা বিরক্ত হবেন না, বিশেষ করে যারা মাসালা ছবির ভক্ত।

প্লট

তবে এই ছবির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক ছবির প্লট। ছবির প্লট বাছতে রোহিত একেবারেই মোক্ষম জায়গায় হাত দিয়েছেন। এই সময়ে ভারতের সবচেয়ে জ্বলজ্বলে ইস্যু ধর্ষণ। আর সেই বিষয়কে কেন্দ্র করেই ঘুরছে ফিরেছে ছবির কাহিনি। ধর্ষণ ভারতের মহামারি আকার ধারণ করা একটি বিষয়।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sara Ali Khan (@saraalikhan95)


কিছুতেই যেন নিস্তার পাওয়া যাচ্ছে না। খবরের কাগজ খুললেই এ খবর চোখে ভাসে। এই মহামারি ফেরাতে উপায় কী? রোহিত মোটা দাগে যেন সে কথা কিছুটা বলেও দিলেন। ছবির শেষের দিকে তাই সংলাপ থাকে, ধর্ষকদের এমন শাস্তি দেওয়া উচিত যাতে ওদের মনে ভয় ধরে যায়।

বলে রাখি, এই ছবির মধ্য দিয়ে রোহিত শেঠির পুলিশ পৃথিবীতে আগমন ঘটল নতুন নায়কের তিনি ইন্সপেক্টর সংগ্রাম বালেরাও সিম্বা। ফ্রাঞ্চাইজি জ্বরে কাঁপছে পুরো বিশ্ব। অ্যাভেঞ্জার্স তার বড় উদাহরণ। বলিউডে এই রীতি খুব একটা চালু নয়। রোহিত শেঠি করতে যাচ্ছেন।

পুলিশ ফ্রাঞ্চাইজি

পুলিশ ফ্রাঞ্চাইজতে রোহিত প্রথম চরিত্র নির্মাণ করেন বাজিরাও সিংহামকে দিয়ে। সিংহাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন অজয় দেবগন। সিংহাম সিরিজের দুটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। আর সিম্বাকে দিয়ে শুরু হলো নতুন আরেক পুলিশ অফিসারকে নিয়ে পুলিশ সিরিজের আরেক পর্ব।
রোহিত শেঠির পুলিশ পৃথিবীতে আগমন ঘটত যাচ্ছে আরও এক পুলিশ অফিসারের। তিনি সূর্যবংশী। এই চরিত্রে দেখা যাবে অক্ষয় কুমারকে। সিম্বা ছবির শেষ দিকে এই ইঙ্গিতও দিয়েছেন রোহিত।
অভিনয়ে একেবারে পাকা ছিলেন এমনটি বলা যাবে না রণবীর সিংকে। কারণ মাঝে মাঝে অতিঅভিনয় চোখে পড়েছে। তবে পুলিশ পৃথিবীতে রণবীর সিংকে যে বেমানান লাগেনি এ একদম খাঁটি। ধান্দাবাজ পুলিশ হিসেবে চুলবুল পান্ডেরূপী সালমান খানের পরে সিম্বার নামটি নেওয়া যাবে অনায়াসে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Ranveer Singh (@ranveersingh)

সারা আলী খানের অংশ ছিল একেবারেই সামান্য। তাতে নিজেকে উতরে গেছেন এই তরুণ অভিনেত্রী। তবে দীপিকাদের জায়গায় যেতে হলে চাই আরও মনযোগ ও পরিশ্রম। অন্যান্য কারিগরী দিক আহামরি অমন কিছু চোখে পড়েনি। মাসালা সিনেমার জন্য যুতসই।